বোরহানউদ্দিনে জনপ্রতিনিধি ও সংবাদকর্মীদের হুমকি দেবার অভিযোগ

বোরহানউদ্দিন (ভোলা) প্রতিনিধি
ভোলার বোরহানউদ্দিনে জনরোষের মুখে রাজনৈতিক ছায়া নেয়ার অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে ভূমিদস্যু খুনের মামলার আসামী আলমগীর, তার দোসা কাশেম পঞ্চায়েত ও তৈয়ব গং। তবে আ’লীগ নেতৃত্ব বলছে, তাদের অপচেষ্টা কখনও সফল হবে না।
স্থানীয় সংবাদকর্মী ও জনপ্রতিনিধিরা তাদের মুখোশ খুলে দেয়ায় ওই চক্র তাদের হুমকি দিচ্ছে ও পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি দিয়ে অপপ্রচারে লিপ্ত হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এর বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়ার জন্য স্থানীয় থানায় বোরহানউদ্দিন পৌর প্যানেল মেয়র সালাউদ্দিন পঞ্চায়েত ও রিপোটার্স ইউনিটির সভাপতি মোবাশ্বির হাসান শিপন পৃথক জিডি ও অভিযোগ করেছেন।
জানা যায়, ওই প্রতারক চক্র জাল, জালিয়াতির মাধ্যমে ১৯৫৫, ৫৬ ও ৫৭ সালের ভুয়া ডিক্রি (টাকার নিলাম) বলে উপজেলার প্রায় ৫ হাজার কৃষকের ৩শ’ একর জমি মৃত হাচন আলীর পুত্র আলমগীর ক্রয় করেছেন বলে দাবি করছেন। ওয়ারিশ সূত্রে দখলের জন্য হাচন আলীর ছেলে আলমগীর, তার দোসর কাশেম পঞ্চায়েত, তৈয়ব গং কৃষকদের হামলা ও মিথ্যা মামলায় জড়াচ্ছে।
তবে আলমগীরের মা জোমেলা খাতুন, ভাই জাকির হোসেন (কুয়েত জাকির) জানান, কোন সময়ই হাচন আলী টাকার নিলাম ক্রয় করেননি। আলমগীর জাল কাগজ তৈরি করে এ অপকর্ম করছে। তারা ইতিমধ্যে ৩টি মামলায় কোর্টে হাচন আলীর নামে কোন ডিক্রির অস্তিত্ব নেই এ মর্মে সাক্ষ্য দিয়ে এসেছেন।
অপর দিকে ভূক্তভোগী কৃষক শাফিজল মৃধা জানান, তার জমি আলমগীর ডিক্রি বলে পাবে বলে আদালতে মামলা করে। মামলা ও আপীল মামলায় ডিক্রি ভুয়া প্রমাণ হলে আদালত আলমগীরের বিপক্ষে রায় দেয়। এছাড়া আরো ৪টি মামলায় আদালত বরিশাল থেকে বালাম বই তলব করলে কোথাও ডিক্রির অস্তিত্ব মেলেনি।
অভিযোগ উঠছে, আলমগীর ও কাশেম পঞ্চায়েত রাজনৈতিক ছায়ায় তাদের অপকর্ম চালানোর চেষ্টা চালাচ্ছেন। বিএনপির একাধিক নেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, কাশেম পঞ্চায়েত বিএনপি দলীয় সাবেক নেতা হাফিজ ইব্রাহিমকে বাবা ডাকতো। ওই দুই জনের সাথে বিএপির দীর্ঘদিনের সম্পর্ক ছিলো। এখন ব্যক্তিগত সুবিধার জন্য ভোল পাল্টে ফেলেছে। উপজেলা আ’লীগ সভাপতি জসিমউদ্দিন হায়দার, পৌর মেয়র ও আ’লীগ সাধারণ সম্পাদক মো. রফিকুল ইসলাম জানান, আলমগীর কখনই তাদের রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলো না। অপকর্ম করলে কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না।
পৌর প্যানেল মেয়র মো. সালাউদ্দিন পঞ্চায়েত জানান, তাকে হুমকি ও মিথ্যা প্রচারণার অভিযোগে দস্যুদের বিরুদ্ধে থানায় জিডি ও অভিযোগ করা হয়েছে। রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি মোবাশ্বির হাসান শিপন জানান,যেকোন পরিস্থিতিতে সত্যের পক্ষে তাদের অবস্থান। তাকেসহ সংবাদকর্মীদের হুমকি ও অপপ্রচারের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করা হয়েছে।
বোরহানউদ্দিন থানার ওসি রতন কৃষ্ণ রায় চৌধুরী জানান, অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
এদিকে ঘটনার তীব্র নিন্দা ও দোষীদের বিরুদ্ধে অবিলম্বে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানিয়েছেন, কালের কন্ঠ প্রতিনিধি শিমুল চৌধুরী, ইত্তেফাক প্রতিনিধি মনিরুজ্জামান, ইনকিলাব প্রতিনিধি মো. রিয়াজ, যুগান্তর প্রতিনিধি নীল রতন দে, আমাদের সময় প্রতিনিধি এজি মাইনুল, মানবজমিন প্রতিনিধি এমরান হোসেন, মানবকন্ঠ প্রতিনিধি নজরুল ইসলাম, আমার দেশ প্রতিনিধি ফয়সাল আহমেদসহ আঞ্চলিক প্রত্রিকার প্রতিনিধিবৃন্দ।
#

এ সম্পর্কিত আরো লেখা