পছন্দের মানুষটির সাথে সম্পর্কে জড়ানোর আগে নিজেকে প্রশ্ন করুন

life-67423025

ইদানীংকালের প্রেমের সম্পর্ক বেশ হুট করেই হয়ে যায়। বলতে গেলে কাউকে সঠিকভাবে বুঝে উঠার আগেই অনেকে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। তবে কথা বলার মাধ্যমেই তো সম্পর্কের শুরু হয়। তাই পছন্দের মানুষটির সাথে সম্পর্কে জড়িয়ে যাওয়ার আগে কিছুটা হলেও কথা বলে তার সম্পর্কে জেনে নেয়া অত্যন্ত জরুরী।

অনেকেই বলতে পারেন কেউকে ভালোবাসার মতো পছন্দ হলে অনেক কিছুই নজরে পড়ে না। কিন্তু শুরুতে যে বিষয়গুলো আপনি এড়িয়ে যেতে পারবেন সেই বিষয়গুলোই পরবর্তীতে বেশ বড় হয়ে সামনে এসে দাঁড়াবে। আর তাই তার সম্পর্কে জেনে নিয়ে তারই ভিত্তিতে নিজেকে কিছু প্রশ্ন করে জেনে নিন আপনার সম্পর্কে জড়ানোর সিদ্ধান্তটি আসলেই সঠিক কিনা।

১) আমি কি সত্যিই তাকে ভালোবাসি?
অনেক সময় কয়েকদিনের চোখের দেখা, কথা বলার মাধ্যমে আরেকজনের প্রতি টান তৈরি হয় যা অনেকেই ভালোবাসা বলে ভুল করে থাকেন। আসলে এটি ভালোবাসা নয় শুধুই মোহ। যখন এই মোহ কেটে যায় তখন টানটাও থাকে না। তাই নিজে প্রথমে নিশ্চিত হয়ে নিন আপনি কি সত্যিই তাকে ভালোবাসেন কিনা।

২) তার মধ্যে সত্যটা কতোটুকু?
আপনি না হয় তাকে ভালবাসলেন, কিন্তু বিপরীতে তিনিও কি আপনাকে ভালোবাসেন কিনা তা কি জানেন? আর যদি তার পক্ষ থেকেই প্রেমের প্রস্তাব এসে থাকে তাহলে তার সত্যটা কতোটুকু তা একটু হলেও যাচাই করে নিন। ভেবে দেখুন তাকে সত্যিই কতোটা বিশ্বাস করা যায়।

৩) তার পারিবারিক পরিচয় কি?
অনেকেই বলতে পারেন সম্পর্ক তো শুধু তার সাথে হচ্ছে, পরিবার এখানে আসে কীভাবে। কিন্তু মনে রাখবেন একটি পরিবারের মানুষ কিন্তু সেভাবেই বড় হয় যা সেই পরিবারের ঐতিহ্য থাকে। পরিবার থেকেই মানুষ শিক্ষা নিয়ে বড় হয়। আর যদি আপনাকে বিয়ে করে সেই পরিবারেই যেতে হয় তাহলে সেই পরিবারের আচার আচরণ, সংস্কৃতি ঐতিহ্য আগে থেকেই জেনে নেয়া ভালো।

৪) আমি কি তার সম্পর্কে জানি?
সম্পর্কে জড়ানোর আগে ভেবে নিন আপনি তার জীবন সম্পর্কে ঠিক কতোটা জানেন। শুধু তার মুখের কথা নয়, তার বন্ধুবান্ধবের সাথে মিশে তাদের কথা থেকেও কিন্তু মানুষটা সম্পর্কে অনেক কিছুই জানা যায়। তাই এইসকল ব্যাপারে একটু হলেও নজর দিন।

৫) সে মানুষ হিসেবে কেমন?
ভালোবাসার জন্য সকলে প্রথমে বাহ্যিক সৌন্দর্য দেখলেও সে মানুষ হিসেবে কেমন তা আগে থেকেই জেনে নেয়া উচিত। আর আচার আচরণ শুধু আপনার প্রতি নয় অন্য সকলের প্রতি কেমন তা দেখেও কিন্তু আপনি বিবেচনা করতে পারেন তিনি আসলেই মানুষ হিসেবে কোন ধরণের।

৬) সে জীবন সম্পর্কে কি ভাবে?
অনেক সময় মোহের বশে ভালোবাসা হয় আর পরবর্তীতে দুজনের মধ্যে মিলের চাইতে অমিলটাই বেশি নজরে আসতে থাকে। তাই প্রথমেই ভেবে দেখুন দুজনের জীবন ভাবনার মধ্যে কতোটা মিল রয়েছে। আর যদি কিছুটা হলেও মিল থাকে তাহলে আপনি সত্যিই কতোটা ছাড় দিতে পারবেন তাও ভেবে দেখুন। এবং তার পরেই সিদ্ধান্ত নিন।
সূত্র: ওয়েবসাইট

এ সম্পর্কিত আরো লেখা