ট্রাক-বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ, আহত ২০

accident2

ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কে মালবাহী তিনটি ট্রাক ও একটি যাত্রীবাহী বাসের মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় ওই মহাসড়কে শনিবার গভীর রাত থেকে যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। রাস্তার দুই পাশে অসংখ্য যানবাহন আটকা পড়েছে।

এদিকে দুর্ঘটনাকবলিত একটি ট্রাকের নিচ থেকে ‘বাঁচাও’ ‘বাঁচাও’ চিৎকার ভেসে আসছে। তার নিচে চাপা পড়ে আছেন হতভাগা এক ব্যক্তি। চাপা পড়া অবস্থায় তার এক হাত ও পা দেখা যাচ্ছে। দেহটা ট্রাকের ফাঁকা স্থানে আটকা রয়েছে। এই ব্যক্তিকে জীবিত উদ্ধারের জন্য ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের কর্মীরা আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। এ দুর্ঘটনায় কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছেন। তবে কারো মৃত্যুর সংবাদ পাওয়া যায়নি।

শনিবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার নয়মাইলের জামালপুর নামক এলাকায় ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কের ফারহান ফিলিং স্টেশনের সামনে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

শরীফ আহম্মেদসহ একাধিক প্রত্যক্ষদর্শী জানান, বগুড়া থেকে ঢাকামুখী তিনটি আলু ও ধানবোঝাই ট্রাক একে অপরকে ওভারটেক করতে গেলে বিপরীত দিক থেকে আসা কান্তি পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। দুর্ঘটনার পর এই চারটি যানবাহন মহাসড়কের ওপর এলোমেলোভাবে উল্টে পড়ে। ফলে মহাসড়ক দিয়ে সবধরণের যান চলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে।

এ বিষয়টি নিশ্চিত করে শেরপুর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন ম্যানেজার সোহেল রানা জানান, ট্রাকের নিচে চাপা পড়া ব্যক্তিকে উদ্ধারের জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা চলছে। তবে এখনও উদ্ধার করা যায়নি। শেষ পর্যন্ত তার পরিণতি কি হয় তা জানতে আরো সময় লাগবে বলে জানান ওই কর্মকর্তা।

এছাড়াও মহাসড়ক দিয়ে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হতে আরও কত সময় লাগবে তাও এই মুহূর্তে বলা সম্ভব নয় বলে জানান তিনি।

এ সম্পর্কিত আরো লেখা