যে স্বাস্থ্যকর খাবারগুলো সব নারীরই খাওয়া উচিত

181007179123463

নারীদের স্বাস্থ্য বিষয়টি পুরুষদের থেকে কিছুটা আলাদা। নারী কিংবা পুরুষ উভয়েরই স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া প্রয়োজন একথা সত্য হলেও নারীদের নানা কারণে কিছু পুষ্টি ঘাটতি তৈরি হতে পারে। এ লেখায় রয়েছে নারীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় কয়েকটি খাদ্যের তালিকা।

এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া।

১. তিসি
তিসির বীজ একটি পুষ্টিকর খাবার। বাজারে তিসির তেলও পাওয়া যায়। এতে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি এসিড রয়েছে, যা হৃদরোগ থেকে রক্ষা করতে ভূমিকা রাখে। এটি স্তন ক্যান্সারের বিরুদ্ধেও প্রতিরোধক্ষমতা অর্জন করতে সহায়ক। এছাড়া তিসি আথ্রাইটিস ও পেটের সমস্যা থেকে রক্ষা করে।

২. মাছ
ওমেগা থ্রি যুক্ত মাছ নারীদের স্বাস্থ্যের জন্য সবচেয়ে ভালো। স্যামনসহ বেশ কিছু সামুদ্রিক মাছে এটি পাওয়া যায়। নারীদের প্রচুর মাছ খাওয়া উচিত স্বাস্থ্যগত ঘাটতি পূরণের জন্য।

৩. পালং শাক
পালং শাকে রয়েছে প্রচুর ভিটামিন, মিনারেল ও ম্যঅগনেসিয়াম। ভিটামিন দেহের বহু ঘাটতি দূর করে। অন্যদিকে ম্যাগনেসিয়াম নানা শারীরিক সমস্যা দূর করতে ভূমিকা রাখে। ম্যাগনেসিয়াম যেসব সমস্যা প্রতিরোধ করতে পারে তার মধ্যে রয়েছে ফুলে যাওয়া, স্তনের সমস্যা, রক্তপাত ও ওজন বৃদ্ধি।

৪. বাদাম
আখরোট বাদাম নারীদের জন্য সবচেয়ে প্রয়োজনীয়। এছাড়া বিভিন্ন ধরনের বাদামে রয়েছে বহু ধরনের পুষ্টি উপাদান। এসব উপাদান নারীদের স্বাস্থ্যের জন্য প্রয়োজনীয়।

৫. যব
যবে প্রচুর পুষ্টি উপাদান রয়েছে এবং এটি নারীদের স্বাস্থ্যের জন্য খুবই ভালো। এটি হৃদরোগ থেকে রক্ষা করে এবং হজমে উপকার করে। এছাড়া এটি রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে ও দেহের জন্য অত্যাবশ্যকীয় ভিটামিন বি৬ সরবরাহ করে। পাশাপাশি এতে রয়েরেছফলিক এসিড, যা গর্ভবতী নারীর ও গর্ভস্থ শিশুর জটিলতা দূর করে। যব থেকে কেক, রুটি ইত্যাদি তৈরি করা যায়।

৬. দুধ
দুধ অত্যন্ত পুষ্টিকর খাবার। এতে রয়েছে ক্যালসিয়াম ও অন্য বহু পুষ্টি উপাদান। এটি যে কোনো বয়সের নারীর জন্যই প্রয়োজনীয়। দুধের ভিটামিন ও অন্যান্য পুষ্টি উপাদান বহু সমস্যা দূর করে।

৭. টমেটো
টমেটোতে রয়েছে বহু ধরণের ভিটামিন ও পুষ্টিকর উপাদান। টমেটোর একটি উপাদানের নাম লাইকোপেন। এটি স্তন ক্যান্সার থেকে রক্ষা করতে সহায়তা করে। এছাড়া টমেটোর উপাদান হৃদরোগ থেকেও রক্ষা করতে পারে।

এ সম্পর্কিত আরো লেখা