৪৮ ঘণ্টার মধ্যে সাড়া দেবে ফেসবুক

facebook07012

নারীর প্রতি সহিংসতামূলক এবং সন্ত্রাসীমূলক কনটেন্ট সম্পর্কে অভিযোগ করলে ফেসবুক ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে সাড়া দেবে বলে জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম।

১২ দিনের মালয়েশিয়া ও সিঙ্গাপুর সফর শেষে শনিবার রাতে ঢাকায় ফিরে রোববার দুপুরে সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান তিনি।

গত ১২ জানুয়ারি থেকে ২৩ জানুয়ারি পর্যন্ত এ সফরে সিঙ্গাপুর সরকারের যোগাযোগ ও তথ্যমন্ত্রী ড. ইয়াকুব ইব্রাহীম, সিঙ্গাপুরের সাইবার সিকিউরিটি এজেন্সি (সিএসএ), দেশটির টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি খাতে নিয়ন্ত্রক প্রতিষ্ঠান ইনফোকম ডেভলপমেন্ট অথরিটি অব সিঙ্গাপুর (আইডিএ), সিঙ্গাপুরস্থ ফেইসবুক, মাক্রোসফট ও গুগলের এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠক করেন ৷ মালয়েশিয়া সফরে তারানা দেশটির তথ্য এবং যোগাযোগমন্ত্রী ইব. দাতুক সেরি ড. সালেহ সাঈদ ক্যারুয়াকসহ টেলিযোগাযোগ খাতের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন ৷ এছাড়াও সাইবার সিকিউরিটি অব মালয়েশিয়া, বেসরকারি টেলিকম কোম্পানি আজিয়াটা বারহেড ও হুয়াউয়ের কার্যক্রম সম্পর্কে অবহিত হন।

বাংলাদেশে আপাতত ফেসবুকের অ্যাডমিন প্রতিষ্ঠা করা হচ্ছে না। তবে আপত্তিকর কনটেন্ট অপসারণ ছাড়াও সব ধরনের সাইবার হুমকির রোধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার বিষয়ে আশ্বাস দিয়েছে ফেইসবুক কর্তৃপক্ষ। প্রতিমন্ত্রী বলেন, সকল অনুরোধের ক্ষেত্রে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ ন্যূনতম সময়ের মধ্যে সাড়া দেবে।

তিনি বলেন, নারীর প্রতি সহিংসতা ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে ব্যবহৃত ওয়েব ঠিকানা (ইউআরএল) সরবরাহ করলে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ কী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে তা ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে জানাবে।

নির্দিষ্ট মুখপাত্রের (বিটিআরসি’র বিডি সার্ট সেল) মাধ্যমে ফেসবুকের কাছে অভিযোগ জানাতে হবে, এরই মধ্যে বেশকিছু অভিযোগের সাড়া পাওয়া গেছে বলেও জানান তারানা।

সন্ত্রাসী কার্যক্রম সংক্রান্ত যেকোনো বিষয়ে ফেসবুক অত্যন্ত কঠোর এবং এ সংক্রান্ত কনটেন্ট নজরে আসামাত্র ফেসবুক কর্তৃপক্ষ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বলে জানান প্রতিমন্ত্রী।

তারানা হালিম জানান, বাংলাদেশের আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ও সরকারি কর্মকর্তাদেন সাইবার নিরাপত্তার বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেবে ফেসবুক।

এছাড়া নিরাপদে ফেসবুক ও ইন্টারনেট ব্যবহারের জন্য জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে তরুণদের জন্য ‘নিরাপদ ইন্টারনেট’ বিষয়ক কর্মশালার আয়োজন করা হলে ফেইসবুক প্রতিনিধি পাঠাবে।

বাংলাদেশে ফেসবুকের অ্যাডমিন প্যানেল প্রতিষ্ঠার বিষয়ে জানতে চাইলে প্রতিমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, তাদের অ্যাডমিনসমূহ কেবল দৈনন্দিন কার্যক্রম ও প্রচারণার কাজ করে থাকে। অ্যাডমিন প্রতিষ্ঠা না করেও তারা নারীর প্রতি হিংসা, অশ্লীল ছবি, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড ইত্যাদি বিষয়ে পদক্ষেপ গ্রহণ করতে পারবে।

এ সম্পর্কিত আরো লেখা