আসলাম চৌধুরী ৭ দিনের রিমান্ডে

aslam chowdhuri

গুলশান থানার রাষ্ট্রদোহ মামলায় বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব আসলাম চৌধুরীকে সাত দিনের রিমান্ড দিয়েছে আদালত।
ঢাকার মহানগর হাকিম গোলাম নবী মঙ্গলবার এ আদেশ দেন। শুনানির জন্য তাকে আদালতে হাজির করা হয়।
এর আগে গত ২৭ মে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের আদালতে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) পরিদর্শক ফজলুল হক আসলামকে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে ১০ দিন রিমান্ডে নেয়ার আবেদন করেন।
আদালতে আসলামের পক্ষে শুনানি করেন তার আইনজীবী অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া ও রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন ঢাকা মহানগর পিপি আব্দুল্লাহ আল আবু।
গত ১৫ মে বিকেলে রাজধানীর কুড়িল বিশ্বরোড এলাকা থেকে আসলামকে গ্রেফতার করে পুলিশ। সেখান থেকে তাকে রাজধানীর মিন্টো রোডের ডিবি অফিসে নিয়ে যাওয়া হয়।
পুলিশের পক্ষ থেকে গত ১৪ মে আসলাম চৌধুরীর দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছিল।
উল্লেখ্য, গত ৯ মে ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে ইসরায়েলের সেন্টার ফর ইন্টারন্যাশনাল ডিপ্লোমেসি অ্যান্ড অ্যাডভোকেসির প্রধান মেন্দি এন সাফাদির সাথে আসলাম চৌধুরীর বৈঠকের খবর প্রকাশিত হয় ইসরায়েলের সংবাদমাধ্যম ‘জেরুজালেম অনলাইন ডটকম’-এ।
এরপর বাংলাদেশের কয়েকটি গণমাধ্যমেও মেন্দির সাথে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব আসলাম চৌধুরীর বৈঠক সংক্রান্ত বেশ কিছু ছবি ও সংবাদ প্রকাশিত হয়। খবর প্রকাশিত হওয়ার পর দেশের রাজনীতিতে ব্যাপক তোলপাড় শুরু হয়।
এদিকে সাত দিনের রিমান্ড বাতিল চেয়ে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব আসলাম চৌধুরীর আবেদন নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত তাকে নতুন করে রিমান্ডে নেয়া যাবে না বলে নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। তবে তার চলমান সাত দিনের রিমান্ড নিয়ে কোনো আদেশ দেননি আদালত।
গত ২২মে আসলাম চৌধুরীর পক্ষে আইনজীবী ব্যারিস্টার এ এম মাহবুব উদ্দিন খোকন রিমান্ড বাতিল চেয়ে আবেদন করেন। ওই আবেদনের ওপর প্রথম দিনের মতো শুনানি শেষে বিচারপতি এ কে এম আসাদুজ্জামান ও বিচারপতি মো. আতাউর রহমান খানের হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চ এ আদেশ দেন।
#

এ সম্পর্কিত আরো লেখা