বুধবার প্রতিবাদ বিক্ষোভ করবে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি

us-bnp

দলের স্বার্থে ও দেশের গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে ভূমিকা রাখতে সকল রাগ-অভিমান ভুলে এক কাতারে এসেছে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি। অল্প সময়ের মধ্যে সমাবেশ করতে একমত হয়েছে সবাই। আর সে লক্ষ্যেই সোমবার নিউইয়র্কে বাংলাদেশী অধ্যুষিত টক অফ দ্যা টাউন রেস্টুরেন্টে মিলিত হয় যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির শতাধিক নেতাকর্মী। সিদ্ধান্ত হয়, শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে স্মরণকালের সেরা বিক্ষোভ প্রদর্শন করা হবে যুক্তরাষ্ট্রে। বুধবার বিক্ষোভ সমাবেশের প্রস্তুতি নিয়ে লন্ডন থেকে টেলিফোনে বক্তব্য রাখেন বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মাহিদুর রহমান। এর আগে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির নেতৃবৃন্দের সাথে যোগাযোগ করে বিক্ষোভ সমাবেশ সম্পর্কে দিকনির্দেশনামূলক পরামর্শ প্রদান করেন সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের উপদেষ্টা ব্যারিস্টার সায়েম।
পরিশেষে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির নেতাকর্মীরা একমত হন যে, জাতিসংঘের অধিবেশন চলাকালীন সময়ে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের মাটিতে প্রতিবাদ ও প্রতিরোধ অব্যাহত থাকবে। পাশাপাশি তার হোটেলের সামনেও প্রতিবাদ কর্মসূচী চালাবে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি। জরুরী কর্মীসভায় সবাইকে জিয়ার সৈনিক হিসেবে উল্লেখ করে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক জিল্লুর রহমান বলেন, ‘আমরা পদ পদবির রাজনীতি করি না। যুক্তরাষ্ট্রের মাটিতে অগণতান্ত্রিক কোন ব্যক্তির স্থান হবে না। যুক্তরাষ্ট্রের মাটিতে হাসিনাকে প্রতিরোধের জন্য আমরা যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি ও প্রবাসী গণনতন্ত্রকামী জনতা আজ একতাবদ্ধ। আসুন আমরা অতীত ভুলে গিয়ে দল ও দেশের গণতন্ত্রের স্বার্থে শেখ হাসিনাকে প্রতিরোধ করি’।
অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ডঃ মুজিবুর রহমান মুজমদার বলেন, ‘এখন সময় হাসিনাকে সমুচিত জবাব দেওয়ার। আমরা দল করি শহীদ জিয়ার আদর্শে, বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে এবং দেশনায়ক তারেক রহমানের দিকনির্দেশনায়। আসুন দলকে ভালবেসে আমরা সবাই একতাবদ্ধ হই, হাসিনার বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলি। দেখিয়ে দেই, যুক্তরাষ্ট্রের মাটি শহীদ জিয়ার ঘাটি’।
জরুরী সভায় উপস্থিত ছিলেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের সাবেক বৈদেশিক উপদেষ্টা ও জাতীয়তাবাদী দলের বিশেষ দূত জাহিদ এফ সরদার সাদী। সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপি নেতা জসীম উদ্দিন ভুঁইয়া, ইলিয়াস আহমেদ মাস্টার, হেলাল উদ্দিন, মাহমুদুর চৌধুরী, হাবিবুর রহমান সেলিম রেজা, বাসেত রহমান, মার্শাল মুরাদ, আবু সাঈদ আহমদ, সাঈদুর রহমান, গিয়াস মজুমদার, শাহ্ আলম, আবু সুফিয়ান, এবাদ চৌধুরী, সাইদুর রহমান, আতিকুল হক আহাদ, এমলাক হুসেন ফয়সল, মিজানুর রহমান মিজান, সাইফুর খান হারুন, রেজাউল আহাদ ভুঁইয়া, রুহুল আমীন নাসির, নাসিম খান, নিরা রব্বানি, কাজী আমিনুল ইসলাম স্বপন, ডঃ তারেক, উত্তম বণিক, রাজীব আহমেদ, জীবন শফিক, শাহাদাত হোসেন রাজু, নাসিম আহমদ, ছাইদুর খান ডিউক, এবিএম সিদ্দিক, আরশাদ খান, ফজলে রাব্বী রাজীব, তৌফিক মিয়াসহ যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সকল অঙ্গ সংগঠনের বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মী। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।
#

এ সম্পর্কিত আরো লেখা