বরিশালে লঞ্চ ডুবি : শিশুসহ ১৩ জনের লাশ উদ্ধার

launch-capsize

জেলার বানারীপাড়া উপজেলার সন্ধ্যা নদীতে লঞ্চ ডুবির ঘটনায় নারী ও শিশুসহ ১৩ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।
উদ্ধারকৃত লাশের মধ্যে ১০ জনের পরিচয় জানা গেছে, তারা হচ্ছেন- সুখ দেব মল্লিক (৩০), রাবেয়া বেগম (৫০), মোজাম্মেল মোল্লা (৬০), রুপা বেগম (২৫), সাগর মীর (২৪), জিরাকাঠী গ্রামের মিলন ঘরামী (৩৫), মশাং গ্রামের শান্তা (৮), রহিমা বেগম (৬৫), কোহিনুর বেগম (৪৫) ও অজ্ঞাত (৮) শিশু।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বানারীপাড়া লঞ্চঘাট থেকে ৭০ জন যাত্রী নিয়ে এমএল ঐশী-২ নামের একতলা লঞ্চটি উজিরপুরের উদ্দেশে রওয়ানা হয়। দুপুর ১২টার দিকে সন্ধা নদীর সৈয়দকাঠী ইউনিয়নের মজিদবাড়ি এলাকার দাসের হাট উত্তর পাড়ে যাত্রী ওঠানোর সময় নদী ভাঙ্গনের কবলে পড়ে তীব্র স্্েরাতে লঞ্চটি ডুবে যায়।
জেলা ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের সহকারী পরিচালক ফারুক হোসেন সিকদার জানান, ডুবে যাওয়া লঞ্চ ও নিখোঁজ যাত্রীদের উদ্ধারের জন্য ডুবুরি দল দুপুর ২টা থেকে কাজ শুরু করেছে। ডুবে যাওয়া লঞ্চ থেকে সাঁতরে তীরে উঠতে সক্ষম হয়েছেন প্রায় ১৫ যাত্রী। এ দুর্ঘটনায় এখনও নিখোঁজ রয়েছেন প্রায় ৪০ যাত্রী।
থানা পুলিশ, ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরী দল স্থানীয়দের সহায়তায় উদ্ধার তৎপরতা চালিয়ে দুর্ঘটনায় ডুবে যাওয়া লঞ্চটিকে বিকেল সাড়ে ৩ টার দিকে উদ্ধার করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে বানারীপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জিয়াউল আহসান বলেন, এখন পর্যন্ত ২০ জন নিখোঁজ রয়েছে।
#

এ সম্পর্কিত আরো লেখা