রাজ্যসভা থেকে ইস্তফা মিঠুন চক্রবর্তীর

mithun-mian

রাজ্যসভার সাংসদ পদ থেকে আচমকা ইস্তফা দিলেন মিঠুন চক্রবর্তী।
সূত্রের খবর, ইস্তফাপত্রে অসুস্থতার কারণ দেখিয়েছেন এই অভিনেতা। তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্যসভার সাংসদ ছিলেন মিঠুন চক্রবর্তী। মেয়াদ শেষের ৩ বছর আগেই পদত্যাগ করলেন তিনি।
২০১৪ সালের এপ্রিল মাসে তিনি রাজ্যসভার সাংসদ হয়েছিলেন। তৃণমূল সূত্রে খবর, আগেই ইস্তফার ইচ্ছাপ্রকাশ করে দলকে চিঠি দিয়েছিলেন অভিনেতা।
প্রসঙ্গত, সারদাকাণ্ডে নাম ডড়িয়ে যাওয়ার ফলে, গত বছর বেশ অস্বস্তিতে পড়েছিলেন এই অভিনেতা। এদিন রাজ্যসভার চেয়ারম্যানের কাছে নিজের ইস্তফাপত্র পাঠিয়ে দেন মিঠুন।
সেখানে তিনি লেখেন, স্বাস্থ্যজনিত কারণে তিনি নিজের দায়িত্ব সম্পন্ন করতে পারেননি। তাই তিনি পদত্যাগ করছেন। এখানে বলে রাখা প্রয়োজন, মাত্র তিনদিন সংসদের অধিবেশনে হাজিরা দিয়েছিলেন মিঠুন চক্রবর্তী।
পরে, তৃণমূলের তরফে দলের আরেক রাজ্যসভা সাংসদ ডেরেক ও’ ব্রায়েন বলেন, ওনার এবং ওনার পরিবারের সঙ্গে এখনও আমাদের সুসম্পর্ক রয়েছে।
তবে, কোন স্বাস্থ্যজনিত সমস্যার কারণে মিঠুন পদত্যাগ করলেন, সেই নিয়ে কোনও মন্তব্য করেননি ডেরেক। একইভাবে, মিঠুনের জায়গায় এখন কে আসবেন, সেই প্রশ্নের উত্তরও এড়িয়ে যান ডেরেক।
তবে সূত্রের খবর, বেশ কিছুদিন ধরেই অসুস্থ রয়েছেন মিঠুন। জানা গিয়েছে, তাঁর পিঠের সমস্যা রয়েছে।
অভিনেতার ঘনিষ্ঠ মহল সূত্রে খবর, ২০০৯ সালে লাক নামে একটি ছবির শ্যুটিং করার সময় পিঠে চোট পান তিনি। সেখানে, একটি দৃশ্যে হেলিকপ্টার থেকে ঝাঁপ দেওয়ার শট ছিল। সময়ের হেরফের হওয়ায় তাঁর পিঠে চোট লাগে বলে জানা গিয়েছে।
সাম্প্রতিককালে, তাঁকে প্রকাশ্যেও দেখা যায়নি। এ-ও জানা গিয়েছে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে গিয়ে চিকিৎসা করাচ্ছেন এই অভিনেতা।
গত অক্টোবরে মিঠুনের ম্যানেজার জানিয়েছিলেন, মিঠুন মুম্বইতে নয়, লস অ্যাঞ্জেলসে রয়েছেন। আপাতত একমাস সেখানেই থাকবেন। নিজে ফোন ব্যবহার করছেন না।
#

এ সম্পর্কিত আরো লেখা