মাসব্যাপী এশিয়া সফরে বাদশাহ সালমান

Saudi Arabia's King Salman inspects an honour guard at the Parliament House in Kuala Lumpur, Malaysia February 26, 2017. REUTERS/Edgar Su

মালয়েশিয়ায় উষ্ণ অভ্যর্থনা
সউদী বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজ আল-সউদ পারস্পরিক সম্পর্ক জোরদার ও তেলসমৃদ্ধ দেশে বৈদেশিক বিনিয়োগ আকর্ষণের লক্ষ্য নিয়ে মাসব্যাপী বিরল সফরে রোববার মালয়েশিয়ার রাজধানী কুয়ালালামপুরে এসে পৌঁছালে তাকে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানানো হয়। এক দশকেরও বেশি সময়ের মধ্যে এটি মালয়েশিয়ায় কোন সউদী বাদশাহর প্রথম সফর। এই সফরে এশিয়া থেকে দেশটির সরকারী মালিকানাধীন বৃহত্তম তেল কোম্পানী আরামকো’র ৫ শতাংশ শেয়ারের ক্রেতা অনুসন্ধান করা হবে। এটি হবে পৃথিবীর বৃহত্তম শেয়ার প্রস্তাব (আইপিও)।
কুয়ালালামপুর বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজ্জাক বাদশাহ সালমানকে অভ্যর্থনা জানান এবং পার্লামেন্ট গ্রাউন্ডে তাকে গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়।
সউদী আরবের সরকারী বার্তা সংস্থা এসপি রাজকীয় আদালতের বিবৃতি সূত্রে জানায়, দক্ষিণ-র্প্বূ এশিয়ায় তার এ সফরকালে তিনি ইন্দোনেশিয়া, ব্রুনাই, জাপান, চীন, মালদ্বীপ ও জর্দানের স্থানীয় নেতৃবৃন্দের সঙ্গে পারস্পরিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক অভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করবেন।
সফর বিষয়ে জ্ঞাত একটি সরকারী সূত্র জানিয়েছে, মালয়েশিয়া সফরে বাদশাহ সালমানের সঙ্গে রয়েছেন ৬০০ সদস্যের একটি উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধি দল যারা জ্বালানী খাতের উন্নয়ন সংশ্লিষ্ট বিষয় নিয়ে প্রতিপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করবেন।
রাষ্ট্র পরিচালিত তেল কোম্পানী পেট্রোলিয়াম ন্যাশনাল বিএইচডি (পেট্রোনাস) এবং সউদী আরবের আরামকো আগামীকাল মালয়েশিয়ার রিফাইনারি অ্যান্ড পেট্রোকেমিক্যাল ইন্টেগরেটেড ডেভেলপমেন্ট (্আরএপিআইডি) প্রকল্পের সাথে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করবে। এটি হবে বিশ্বব্যাপী তেলের মূল্য পতনের ফলে ধুঁকতে থাকা দক্ষিণ-র্প্বূ এশিয়ার দেশটির অর্থনীতির জন্য একটি আশার আলো।
২০০৬ সালে সর্বশেষ বার বাদশাহ সালমানের সৎ ভাই ও পূর্বসূরী বাদশাহ আব্দুল্লাহ ৩০০ সদস্যের প্রতিনিধি দল নিয়ে মালয়েশিয়া সফর করেন।
নাজিব রাজাক গত শুক্রবার এক সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘মালয়েশিয়ায় সউদী আরবের বিনিয়োগ হাজার হাজার নতুন কর্মসংস্থানের সৃষ্টি করবে এবং তিনি গর্বিত যে, মালয়েশিয়ার প্রতিষ্ঠানগুলো সউদী আরবের অত্যন্ত সম্মানজনক অবস্থানগুলোকে প্রকল্প গড়ে তোলার নির্বাচন করেছে’।
বাদশাহ সালমান তার ব্যক্তিগত চলন্ত সিঁড়ির পাশাপাাশি উড়িয়ে এনেছেন দু’টি ব্যক্তিগত গাড়ী। সফরকালের জন্য তার সফরসঙ্গীদের জন্য কুয়ালালামপুরের ৩টি অভিজাত হোটেল রিজার্ভ করা হয়েছে।
মালয়েশিয়া থেকে আগামী পহেলা মার্চ ৯ দিনের সফরে ইন্দোনেশিয়া যাবেন সউদী বাদশাহ ও তার সফরসঙ্গীরা। এরপর আগামী ১২ থেকে ১৪ মার্চ তার জাপান সফরের কথা রয়েছে বলে সেখানকার সরকারী কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। মালদ্বীপের কূটনৈতিক সূত্রে জানা গেছে, সফরের শেষ দিকে বাদশাহ সালমান সপÍাহ দুয়েক মালদ্বীপে অবস্থান করবেন। স্থানীয় সংবাদপত্র সূত্র জানায়, মালদ্বীপে এর জন্য ৩টি রিসোর্ট বুক করা হয়েছে।
এদিকে ইন্দোনেশিয়া সফরের আগেই সেখানে পৌঁছে গেছে দু’টি মার্সিডিজ বেঞ্জ এস৬০০ লিমোজিনসহ ৪৫৯ টন লাগেজ। আগামী পহেলা মার্চ বাদশাহ সালমানের ৯ দিনের ইন্দোনেশিয়া সফর শুরু হবে। ২০১৫ সালে বাদশাহ হিসেবে অভিষিক্ত হবার পর দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোতে এটা তার প্রথম সফর। মালামাল হ্যান্ডলিংয়ে যুক্ত একটি সংস্থার পরিচালক আদি গুনাওয়ান জানিয়েছেন, বাদশাহর সঙ্গে আনা মালামালের মধ্যে ৬৩ টন পূর্ব জাকার্তার হালিম পারদানাকুসুমা বিমানবন্দরে আনলোড করা হবে এবং বাকি ৩৯৬ টন নামানো হবে বালির দেনপাসারে অবস্থিত এনগুরাহ রাই ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টে।
আদি জানান, মার্সিডিজ বেঞ্জ গত ১৮ ফেব্রুয়ারী দেনপাসারে এসে পৌঁছে। একটি ইলেক্ট্রিক লিফট হালিমে আসে ২১ ফেব্রুয়ারী। এছাড়া আরো একটি ইলেক্ট্রিক লিফট অন্যান্য সরঞ্জামসহ গত ২২ ফেব্রুয়ারী দেনপাসারে এসে নামে। আদি আরো জানান, মালয়েশিয়ায় ৪ দিনের সফর শেষে ইন্দোনেশিয়ায় আগমনকালে বাদশাহর সফরসঙ্গী থাকবেন মন্ত্রী, ২৫ যুবরাজসহ মোট ৮০০ জন।
তিনি আরো জানান, সউদী বাদশাহর সফরসঙ্গীদের সেবায় জাকার্তায় তাদের ১৭৮ শ্রমিক এবং দেনপাসারে ৩৯৪ জন কর্মী নিয়োজিত থাকবেন।
#

এ সম্পর্কিত আরো লেখা