পারলেননা মেসি, রোনাল্ডোই জিতলেন বর্ষসেরার পুরষ্কার

Ronaldo

আবারো ফিফার বর্ষসেরা পুরুষ ফুটবলারের পুরস্কার জিতেছেন রেয়াল মাদ্রিদ তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো।
আর বর্ষসেরা নারী ফুটবলার হয়েছেন লিয়েকে মার্টেন্স। এছাড়া বর্ষসেরা প্রশিক্ষকের খেতাব পেয়েছেন রেয়াল মাদ্রিদের কোচ জিনেদিন জিদান।
জাতীয় দলের অধিনায়ক, ম্যানেজার ও ক্রীড়া সাংবাদিকদের ভোটের ভিত্তিতে এই পুরষ্কারগুলো নির্ধারণ করা হয়। গত বছরের ২০ নভেম্বর থেকে এ বছরের ২ জুলাই পর্যন্ত খেলোয়াড়দের পারফরমেন্স এতে বিবেচনায় নেয়া হয়েছে।
তবে, এবছরে প্রথমবারের মতন অনলাইনে নেয়া হয়েছে কিছু ফুটবল ফ্যানের ভোট।
বর্ষসেরা খেলোয়াড় বা ফিফা দা বেস্ট-এর তালিকায় ছিল লিওনেল মেসি, নেইমার জুনিয়র এবং ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর নাম।
তিন বছরই গত বছর প্রচণ্ড ভালো ফুটবল খেলেছিলো কিন্তু তারপরে রোনাল্ডোর বর্ষসেরা হওয়ার পেছনে মূল ভূমিকা রেখেছে ২০১৬-১৭ সালে রেয়াল মাদ্রিদকে চ্যাম্পিয়ানস লীগ ও লা লিগা জিতিয়েছেন। লা লিগায় তিনি একাই ২৫টি গোল করেছেন।
এর আগে ব্যালন ডি আর ২০১০ থেকে ২০১৫ রোনাল্ডো আর লিওনেল মেসি ঘুরে ফিরে জিতেছিলেন।
এবার নিয়ে পাঁচ বারের মতো বর্ষসেরার পুরষ্কার পেলেন রোনাল্ডো।
রোনাল্ডো ও মেসি দুজনেরই পাঁচবার করে এ পুরষ্কার জেতা হলো।
আর শ্রেষ্ঠ গোলদাতার পুরষ্কার পেয়েছেন অলিভিয়া জিরহুদ। তিনি গত জানুয়ারিতে ক্রিস্টাল প্যালেসের বিরুদ্ধে তার আলোচিত ‘স্কর্পিয়ান কিক’ এর জন্য বিশেষভাবে প্রশংসিত।
ওদিকে বর্ষসেরা গোলরক্ষকের পুরস্কার পেয়েছেন ইউভেন্তুসের ইটালিয়ান গোলরক্ষক জানলুইজি বুফন।
আবার রোনাল্ডোর মতোই চ্যাম্পিয়ানস লীগ ও লা লিগা জেতানোয় সেরা কোচের পুরষ্কার জিতলেন রেয়াল মাদ্রিদের কোচ জিনেদান জিদান।
এমনকি শ্রেষ্ঠ দলে বা ওয়ার্ল্ড ইলেভেনে সুযোগ পেয়েছেন রেয়াল মাদ্রিদের পাঁচজন তারকা।
তো সব মিলিয়ে বলা যায় রেয়াল মাদ্রিদেরই জয়জয়কার।

এ সম্পর্কিত আরো লেখা